Tuesday, 27 September 2022

   12:53:21 PM

logo
logo
পুলিশ মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি জাদুঘর উদ্বোধন করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

1 week ago

পুলিশ মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি জাদুঘর উদ্বোধন করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

আরএমপি নিউজঃ মহান মুক্তিযুদ্ধে রাজশাহী পুলিশের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস সংগ্রহ, সংরক্ষণ ও প্রদর্শনের লক্ষ্যে আরএমপি'র উদ্যোগে নির্মিত পুলিশ মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি জাদুঘর, রাজশাহী'র উদ্বোধন করলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আসাদুজ্জামান খান, এমপি, মাননীয় মন্ত্রী,স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

 এ উপলক্ষ্যে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ আজ ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ রোজ সোমবার সকাল ১০ টায় আরএমপি পুলিশ লাইন্সে এক আড়ম্বোরপূর্ণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

প্রধান অতিথি জাদুঘর উদ্বোধনের পর আরএমপি পুলিশ কমিশনার মো: আবু কালাম সিদ্দিক এর পৃষ্ঠপোষকতায় রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ কর্তৃক মুক্তিযুদ্ধে রাজশাহী পুলিশের ভূমিকা ও বীর পুলিশ মুক্তিযোদ্ধাদের মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিকথন, গবেষকদের লেখনী রক্ষণাবেক্ষণের জন্য ‘মুক্তিযুদ্ধে রাজশাহী পুলিশ’ শিরোনামে প্রকাশিত গ্রন্থটির মোড়ক উম্মোচন করেন। এরপর তিনি রাজশাহী পুলিশ লাইন্স প্রতিরোধ যুদ্ধে ১২ জন শহিদ পুলিশ পরিবারের সদস্য ও  ৫ জন বীর পুলিশ মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা প্রদান করেন। এছাড়াও পুলিশ কমিশনার প্রধান অতিথি মহোদয়কে সম্মাননা স্মারক এবং প্রীতি উপহার দেন।

প্রধান অতিথি মহোদয় বলেন, পুলিশ মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি জাদুঘর, রাজশাহী মুক্তিযুদ্ধে বীরত্বগাথা যুগ যুগ ধরে সংরক্ষণ করবে। মুক্তিযুদ্ধে শহিদ পরিবারের সদস্যরা যে অনুভুতি ব্যক্ত করেন, তা নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের চেনতায় উদ্ধুদ্ধ করবে। এছাড়াও তিনি মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণমূলক বক্তব্য দেন এবং পুলিশের অবদান তুলে ধরেন। এমন আয়োজনে মুগ্ধতা প্রকাশ করে আরএমপি পুলিশ কমিশনারকে ধন্যবাদ জানান।   

পুলিশ কমিশনার মহোদয় তাঁর বক্তব্যে বলেন, স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছরেও শহিদ পুলিশ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মৃতির সংরক্ষণে কোনো উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়নি। আমরাই স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে মহান মুক্তিযুদ্ধে রাজশাহী পুলিশের ও পুলিশ লাইন্সের বীরত্বের ইতিহাস সংরক্ষণের জন্য পুলিশ মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি জাদুঘর স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করি। পাশাপাশি জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান মুক্তিযুদ্ধে অকুতোভয় বীর পুলিশ সদস্যদের বীরত্বগাথা ও পুলিশ লাইন্সের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস হৃদয়ে লালন ও স্মৃতি সংরক্ষণ-সহ মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ‘মুক্তিযুদ্ধে রাজশাহী পুলিশ বই প্রকাশের আমরা উদ্যোগ গ্রহণ করি। আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি বইটি মুক্তিযুদ্ধে রাজশাহী পুলিশের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাসকে তুলে ধরবে এবং নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশকে এগিয়ে নিতে অনুপ্রেরণা জোগাবে।

এছাড়াও শহিদ পরিবারের সদস্যরা বক্তব্যে মুক্তিযুদ্ধে তাদের বাবার বিভিন্ন স্মৃতিচারণ করেন।

উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব এ. এইচ. এম খায়রুজ্জামান লিটন, মাননীয় মেয়র, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন, জনাব মো: আখতার হোসেন, সিনিয়র সচিব, জননিরাপত্তা বিভাগ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, জনাব জি এস এম জাফরউল্লাহ্ এনডিসি, বিভাগীয় কমিশনার, রাজশাহী, জনাব মো: আব্দুল বাতেন বিপিএম, পিপিএম, ডিআইজি, রাজশাহী রেঞ্জ, জনাব আব্দুল জলিল, জেলা প্রশাসক, রাজশাহী ও জনাব এ বি এম মাসুদ হোসেন বিপিএম (বার), পুলিশ সুপার, রাজশাহী, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল, বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ, শহিদ পুলিশ পরিবারের সদস্যগণ, রাজশাহী জেলা ও মহানগর রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ-সহ আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ।

স্বাধীনতার ৫০ বছর পর মুক্তিযুদ্ধে রাজশাহী পুলিশের গৌরবগাথা ও স্মৃতি সংরক্ষণে পুলিশ মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি জাদুঘর, রাজশাহী নির্মাণ ও গ্রন্থ প্রকাশ হওয়ায় রাজশাহী'র বীর পুলিশ মুক্তিযোদ্ধা, শহিদ পুলিশ পরিবারের সদস্যবৃন্দ-সহ মহানগরবাসী অত্যন্ত আনন্দিত।